• শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০:২৩ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
তথ্যপ্রযুক্তি খাতে করারোপ হচ্ছে না ঢাকায় ব্যাটারিচালিত রিকশা চলতে বাধা নেই টেলিটক, বিটিসিএলকে লাভজনক করতে ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ ভারত থেকে ২শ কোচ কেনার চুক্তি বেসরকারি কোম্পানি চালাতে পারবে ট্রেন দেশে মাথাপিছু আয় বেড়ে ২৭৮৪ ডলার ৫ জুন বাজেট অধিবেশন শুরু চালু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক শান্তি পুরস্কার বুদ্ধ পূর্ণিমা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা বার্তা পাঠ করলেন বিপ্লব বড়ুয়া ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক নিত্যপণ্যের বাজার কঠোর মনিটরিংয়ের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর উত্তরা থেকে টঙ্গী মেট্রোরেলে হবে নতুন ৫ স্টেশন এমপিও শিক্ষকদের জন্য আসছে আচরণবিধি সরকার ই-বর্জ্য ব্যবস্থাপনা উন্নত করতে কাজ করছে: পরিবেশমন্ত্রী বাংলাদেশে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণে আগ্রহী কানাডা মেট্রোরেলে ভ্যাট এনবিআরের ভুল সিদ্ধান্ত ২৫ মে বঙ্গবাজার কমপ্লেক্সের নির্মাণ কাজের উদ্ভোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী সাগরে মাছ ধরা ৬৫ দিন বন্ধ বান্দরবানে যৌথ বাহিনীর অভিযানে তিনজন নিহত বঙ্গবন্ধু ‘জুলিও কুরি’ পদক নীতিমালা মন্ত্রিসভায় উঠছে

৩৭ ঘণ্টা পর ধংসস্তূপ থেকে উদ্ধার রিংকু

সিরাজগঞ্জ টাইমস / ৪৪ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : বুধবার, ৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২৩

অবশেষে তুরস্কের কাহরামানমারাস সুতচু ইমাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলাদেশী শিক্ষার্থী গোলাম সাইদ রিংকুকে ধ্বংসস্তূপ থেকে ৩৭ ঘণ্টা পর জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতে তুরস্কে বাংলাদেশ দূতাবাসের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্স রফিকুল ইসলাম এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, ‘রিংকুকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। এর পর তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।’

তিনি বলেন, উদ্ধারকারীদের সঙ্গে থাকা বাংলাদেশী শিক্ষার্থী জাকারিয়া তুরস্কের স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টা ১৭ মিনিটের দিকে আমাদের জানিয়েছেন, রিংকুকে ধ্বংসস্তূপের ভেতর থেকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। ‘উদ্ধারকারীরা রিংকুকে হাসপাতালে নিয়ে গেছেন। বর্তমানে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানতে পেরেছি।’

রিংকু যে ভবনে বাস করতেন, সেটি ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থলের কাছেই ছিল ভবনটি। এর আগে, গতকাল ওই ভবনের ধ্বংসস্তূপের ভেতর থেকে আরেক বাংলাদেশী নূরে আলম বের হয়ে আসতে সক্ষম হন। তিনি সুস্থ আছেন এবং বর্তমানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
এ দিকে. ভয়াবহ ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত তুরস্কের ধংস্তূপ থেকে আহত-নিহতদের উদ্ধারে বাংলাদেশ থেকে উদ্ধারকর্মী যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বন্ধপ্রতিম তুরস্কের এই বিপদে সহায়তা করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যদের নিয়ে একটি সম্মিলিত উদ্ধারকারী দল বাংলাদেশ থেকে তুরস্কে যাচ্ছে।

অপরদিকে, জরুরি যোগাযোগের জন্য দেশটির বাংলাদেশের আঙ্কারা দূতাবাস ও ইস্তান্বুলের বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল অফিসে হটলাইন চালু করা হয়েছে। এ হটলাইনে জরুরি যোগাযোগ করতে অনুরোধ করা হয়েছে।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের পরিপ্রেক্ষিতে তুরস্কে ভূমিকম্পের ঘটনায় উদ্ধারকাজে যোগ দিতে বাংলাদেশ থেকে একটি উদ্ধারকারী দল পাঠানো হচ্ছে। এতে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্য থাকবেন।

ফায়ার সার্ভিস জানায়, প্রধানমন্ত্রীর সানুগ্রহ নির্দেশনার আলোকে সম্মিলিত সাহায্যকারী দলের সঙ্গে পাঠানোর জন্য ফায়ার সার্ভিসের ১২ সদস্যের উদ্ধারকারী দল প্রস্তুত করা হয়েছে।
ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স সদর দপ্তরের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (মিডিয়া সেল) শাহজাহান শিকদার জানান, ভয়াবহ ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত তুরস্কে উদ্ধারকাজে যোগ দিতে দেশেটির পক্ষ থেকে আন্তর্জাতিক সহায়তা চাওয়া হয়েছে। সেই পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রীর সানুগ্রহ নির্দেশনার আলোকে বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীর নেতৃত্বে তুরস্কে পাঠানো হচ্ছে একটি সম্মিলিত সাহায্যকারী দল। এতে ফায়ার সার্ভিসের ১২ সদস্যের উদ্ধারকারী দল যাচ্ছে।
এ বিষয়ে এক প্রতিক্রিয়ায় ফায়ার সার্ভিসের মহাপরিচালক (ডিজি) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. সাজ্জাদ হোসাইন বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় সম্মিলিত উদ্ধারকারী দলের সঙ্গে ফায়ার সার্ভিসকে অন্তর্ভুক্ত করায় আমরা সম্মানিত বোধ করছি। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে উদ্ধারকাজ পরিচালনার জন্য এটি ফায়ার সার্ভিসের প্রথম বিদেশযাত্রা।
বাংলাদেশে তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মোস্তফা ওসমান তুরান মঙ্গলবার এক এসএমএস-এ জানিয়েছেন, ভয়াবহ ভূমিকম্পে বিপর্যন্ত তুরস্ককে সহায়তার জন্য বাংলাদেশের একটি উদ্ধারকারী দল পাঠানো হবে। উদ্ধধারকারী দলটি আজ বুধবার তুরস্কের উদ্দেশে রওনা হবে।
পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সূত্রও জানিয়েছে, ‘আশা করা হচ্ছে বুধবার উদ্ধারকারী একটি দল তুরস্কের উদ্দেশে রওনা দেবে। প্রাথমিকভাবে সেনা ও দমকল বাহিনীর কয়েকজন সদস্যকে এই দলে পাঠানো হচ্ছে। এ বিষয়ে আমরা কাজ করছি।’
হটলাইন চালু ॥ তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলে ভয়াবহ ভূমিকম্পে দেশটির বাংলাদেশের আঙ্কারা দূতাবাস ও ইস্তান্বুলের বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল অফিসে হটলাইন চালু করা হয়েছে। এ হটলাইনে জরুরি যোগাযোগ করতে অনুরোধ করা হয়েছে।
তুরস্কে বাংলাদেশের আঙ্কারা দূতাবাস ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার প্রবাসীদের এ দুটি হটলাইনে যোগাযোগ করতে বলেছে- +৯০ ৫৪৬ ৯৯৫ ০৬৪৭ ও +৯০ ৫৩৮ ৯১০ ৯৬৩৫।
এছাড়াও ইস্তান্বুলের বাংলাদেশ দূতাবাস এক বার্তায় তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলে ভয়াবহ ভূমিকম্পে ব্যাপক হতাহতের ঘটনায় গভীর শোক এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছে। তুরস্কে বসবাসরত বাংলাদেশি নাগরিকদের জরুরি প্রয়োজনে কনস্যুলেটের হটলাইন নম্বর +৯০৮০০২৬১০০২৬।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর