• শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ০১:৪২ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
ঈদের ২য় দিনে শতভাগ কোরবানির বর্জ্য অপসারণ ডিএনসিসির বিসিক চামড়া শিল্প নগরীর সিইটিপি প্রস্তুত : শিল্প সচিব আজ থেকে নতুন সময়সূচিতে চলবে সরকারি অফিস হাসপাতাল ভিজিট করে ডাক্তার হিসেবে লজ্জা লাগছে : স্বাস্থ্যমন্ত্রী এবার আছাদুজ্জামানের দুর্নীতি তদন্তে নামছে দুদক? কবি অসীম সাহার মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক সেন্টমার্টিন দ্বীপ নিয়ে স্বার্থান্বেষী মহলের গুজবে বিভ্রান্ত হবেন না: আইএসপিআর ঈদ কেন্দ্র করে বাড়ল রিজার্ভ চামড়া কেনায় মিলছে ২৭০ কোটি টাকা ঋণ দুই সিটিতে কুরবানির বর্জ্য অপসারণে প্রস্তুত ১৯ হাজার কর্মী দুর্নীতি করে, কাউকে ঠকিয়ে সফল হওয়া যায় না: এলজিআরডি মন্ত্রী আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি: প্রধানমন্ত্রী বিজিবি পুলিশকে সতর্ক থাকার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে স্মার্ট হচ্ছে কৃষি জুনের ১২ দিনে প্রবাসীরা ১৪৬ কোটি ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছেন পদ্মা সেতুতে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ, বঙ্গবন্ধুতে নতুন রেকর্ড পাস হতে পারে ঋণের কিস্তি ছাড়ের প্রস্তাব সারা দেশে অভিযানের নির্দেশ জনশক্তি নিতে আজারবাইজানকে অনুরোধ সরে গেছে মিয়ানমারের জাহাজ

সিরাজগঞ্জে প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখানে ছাত্রীকে হত্যা, যুবকের মৃত্যুদণ্ড

সিরাজগঞ্জ টাইমস / ৭৮ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : বুধবার, ১০ আগস্ট, ২০২২

প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে স্কুলছাত্রী হত্যা মামলায় সঞ্জয় চন্দ্র সরকার (২২) নামে এক যুবককে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত। একই সঙ্গে তাকে ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বুধবার (১০ আগস্ট) দুপুরে সিরাজগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক ফজলে খোদা মো. নাজির এ আদেশ দেন।

দন্ডপ্রাপ্ত সঞ্জয় চন্দ্র সরকার বেলকুচি উপজেলার শোলাকুড়া গ্রামের মৃত মংলা চন্দ্র সরকারের ছেলে।

সিরাজগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট আব্দুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার শোলাকুড়া গ্রামের পবিত্র সরকারের কন্যা পূজা সরকার শোলাকুড়া মরিয়ম বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণিতে লেখাপড়া করতো। স্কুলে যাওয়ার সময় প্রতিবেশী যুবক সঞ্চয় চন্দ্র সরকার প্রায়ই তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিতো। তাকে বিরক্ত করতো। পূজা তার প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করে। এতে ক্ষিপ্ত হয় সঞ্জয় সরকার।

২০২১ সালের ৩ মে পুজা তার বাড়িতে রান্না করছিল। সঞ্জয় পূর্ব পরিকল্পনা মোতাবেক ধারালো ছুরি নিয়ে পুজার বাড়িতে ঢুকে এলোপাতারিভাবে পূজার শরীরের বিভিন্ন অংশে উপর্যুপরি আঘাত করতে থাকে। এসময় পূজার চিৎকারে তার বাবা ও প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে পূজার মৃত্যু নিশ্চিত করে ধারালো ছুরি হাতে দৌড়ে পালিয়ে যায় সঞ্জয়।

পরে পূজার বাবা বাদী হয়ে বেলকুচি থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ সঞ্জয়কে গ্রেফতার করে। সঞ্জয় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দেন।

সাক্ষ্যগ্রহণে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত বুধবার এ রায় দেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর