• রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৪:০৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
দেশবাসীকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রীর দুদিন বন্ধের পর আজ থেকে মেট্রোরেল চালু ইন্টার্ন চিকিৎসকদের ভাতা বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন ঈদে বেড়েছে রেমিট্যান্স, ফের ২০ বিলিয়ন ডলারের ওপরে রিজার্ভ ট্রেনের টিকিট কালোবাজারি চিরতরে বন্ধ হবে: রেলমন্ত্রী বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি বিশ্ব ব্যাংকের চেয়ে বেশি দেখছে এডিবি বান্দরবানে নারীসহ কেএনএফের ৩ সহযোগী গ্রেফতার সদরঘাটের ঘটনায় দোষীদের শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে: নৌ প্রতিমন্ত্রী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার শেখ হাসিনাকে ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন নরেন্দ্র মোদি ইউরোপের চার দেশে বাংলাদেশি শ্রমিক নেয়ার প্রক্রিয়া শুরু ঈদের ছুটিতে স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অপ্রত্যাশিত হাসপাতাল পরিদর্শন আজ উৎসবের ঈদ শেখ হাসিনা দেশ পরিচালনায় মসৃণভাবে এগিয়ে যাচ্ছেন : মার্কিন থিঙ্ক-ট্যাঙ্ক জাহাজে ঈদের নামাজ আদায় করেছেন জিম্মি নাবিকরা সলঙ্গার ধুবিল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কমিটি গঠন ইউসিবির সঙ্গে একীভূত হচ্ছে এনবিএল ডেঙ্গু মোকাবেলায় সবার সহযোগিতার আহবান ডিএনসিসি মেয়রের প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদা পেলেন রাজশাহী ও খুলনার মেয়র বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি ও শিক্ষার পরিবেশ দুটোই থাকা উচিত: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

যশোর থেকে আজ নির্বাচনী প্রচার শুরু শেখ হাসিনার

সিরাজগঞ্জ টাইমস / ৫১ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : বৃহস্পতিবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২২

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জেলা যশোর থেকে আজ ‘নির্বাচনী প্রচারে’ নামছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে দেশের অধিকাংশ জেলাতেই জনসভা করার প্রস্তুতি রয়েছে তাঁর।

প্রায় পাঁচ বছর পর আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যশোর আসছেন। আগামী নির্বাচনের আগে এটিই হবে তাঁর ঢাকার বাইরে প্রথম জনসভা। সে কারণে এ জনসভা কেন্দ্র করে যশোরসহ পুরো দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে প্রাণচাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর জনসভা উপলক্ষে ইতোমধ্যে যশোর শামস-উল-হুদা স্টেডিয়ামের সঙ্গে পাশের ডা. আবদুর রাজ্জাক মিউনিসিপ্যাল কলেজ মাঠ একীভূত করা হয়েছে। এর সঙ্গে যুক্ত আছে যশোর পৌর পার্ক। স্টেডিয়ামে তৈরি করা হয়েছে বিশাল নৌকামঞ্চ। শহরের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোয়ও বড় পর্দায় সরাসরি দেখানো হবে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ। জনসভা সফল করতে কয়েকদিন ধরেই আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতারা যশোরে অবস্থান করে প্রস্তুতি কাজ তদারক করছেন। সবশেষ গতকাল জনসভাস্থল কয়েক দফা পরিদর্শন করেন বঙ্গবন্ধুর ভ্রাতুষ্পুত্র বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দিন, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম, সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল হক, এস এম কামাল হোসেন, দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, কেন্দ্রীয় সদস্য আমিরুল ইসলাম মিলন, বাগেরহাট-২ আসনের এমপি শেখ সারহান নাসের তন্ময়, যশোর জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন, সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার, কাজী নাবিল আহমেদ এমপি, সাইফুজ্জামান শিখর এমপি, যশোর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাইফুজ্জামান পিকুল প্রমুখ।

মঞ্চ পরিদর্শনে এসে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, জনসভার সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। যশোরসহ আশপাশ এলাকার কোনো মানুষ ঘরে থাকবে না। তারা বৃহত্তর যশোরের উন্নয়নে রূপকার বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার কথা শুনতে আসবে। জনসভায় ১০ লাখ লোকের সমাগম হবে। প্রেসিডিয়ামের আরেক সদস্য আবদুর রহমান বলেন, জাতীয় সংসদ নির্বাচন সামনে রেখে যশোর থেকে শেখ হাসিনার নির্বাচনী জনসভা শুরু হচ্ছে।

গতকাল সরেজমিন যশোর শামস-উল-হুদা স্টেডিয়াম ঘুরে দেখা গেছে, সব প্রস্তুতি সম্পন্ন। নৌকার আদলে বিশালাকৃতির মঞ্চ তৈরি। পুরো মঞ্চ লাল গালিচার আদলে সাজানো। প্রধানমন্ত্রীর জনসভার ব্যাকস্ক্রিন করা হচ্ছে চারুকলার ছাত্রদের দিয়ে। জনসভামঞ্চ ছাড়াও শহরজুড়ে মাইক ও মনিটর লাগানো হয়েছে। স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ঠিক ৫০ বছর আগে ১৯৭২ সালের ২৬ ডিসেম্বর এ মাঠেই জনাকীর্ণ এক ঐতিহাসিক সমাবেশে ভাষণ দিয়েছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। সে সময় যুদ্ধবিধ্বস্ত একটি দেশ পুনর্গঠনে জাতিকে উদ্বুদ্ধ করতে গুরুত্বপূর্ণ ভাষণ দিয়েছিলেন তিনি। ৫০ বছর পর দেশকে একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করে, দেশের প্রতিটি কোনায় উন্নয়ন কর্মকান্ডের সুফল পৌঁছে দিয়ে ঐতিহাসিক সেই মাঠেই আজ ভাষণ দেবেন তাঁরই কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যশোর জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ বলছেন, আওয়ামী লীগ যশোর অঞ্চলে যে পরিমাণ উন্নয়ন কর্মকান্ড করেছে, এর আগে কোনো সরকারই তা করতে পারেনি। দেশের প্রথম ডিজিটাল জেলা যশোরে আওয়ামী লীগই ৩০০ কোটি টাকা ব্যয়ে তৈরি করেছে দেশের প্রথম সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক। ২৬২ কোটি টাকা ব্যয়ে খনন করা হয়েছে কপোতাক্ষ নদ। ভৈরব নদের ভরাট হয়ে যাওয়া ৯৬ কিলোমিটার খনন করা হচ্ছে ২৭২ কোটি টাকা ব্যয়ে। যশোরের দুঃখ ভবদহ সমস্যার সমাধানও হয়েছে আওয়ামী লীগ সরকারের উদ্যোগে। ৬২ বছরের পুরনো যশোর বিমানবন্দরকে ৩৩ কোটি টাকা খরচ করে আধুনিকায়ন করা হয়েছে। ফলে এ বিমানবন্দরটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর করার ক্ষেত্র অনেকটা এগিয়ে গেছে। পদ্মা সেতুর কারণে সড়ক যোগাযোগের ক্ষেত্রে রীতিমতো বিপ্লব হতে যাচ্ছে যশোর অঞ্চলে। যশোরের সঙ্গে আন্তজেলা সড়কগুলোর প্রায় সবই ছয় লেনের করা হচ্ছে। পদ্মা সেতুর মাধ্যমে যশোর-ঢাকা সরাসরি রেল যোগাযোগ চালুর কাজ অনেকটাই এগিয়ে গেছে। পদ্মা সেতু হওয়ার কারণে যশোর অঞ্চলের সবজি ও ফুল বৃহৎ পরিসরে বিদেশে রপ্তানির সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। যশোরের অভয়নগর উপজেলার ভবদহ এলাকায় ৫০৩ একর জায়গার ওপর গড়ে তোলা হচ্ছে ইপিজেড। ইতোমধ্যে জমি অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এখানে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে দেড় লাখ মানুষের কর্মসংস্থান হবে। বছরের পর বছর জলাবদ্ধতায় থেকে ভবদহ এলাকার বেশির ভাগ মানুষ নিঃস্ব হয়ে পড়েছে। ইপিজেড হলে এ এলাকার ৫ লক্ষাধিক মানুষের জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তন আসবে। ইপিজেড ছাড়াও যশোর-বেনাপোল সড়কের পাশে একটি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হবে। এর জন্যও জমি খোঁজা হচ্ছে। এসব উন্নয়ন কর্মকান্ড আরও অর্থবহ করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে যশোরবাসীর আরও কিছু দাবি রয়েছে। এ দাবিগুলোর বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করতে বেশ কিছুদিন ধরে মানববন্ধনসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছে যশোরের নাগরিক সমাজ। এসব দাবির মধ্যে রয়েছে- যশোর মেডিকেল কলেজের সঙ্গে ৫০০ শয্যার হাসপাতাল নির্মাণ, যশোর বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উন্নীতকরণ, মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি জাদুঘর স্থাপন, যশোরকে বিভাগ ও সিটি করপোরেশন ঘোষণা এবং যশোর শামস-উল-হুদা স্টেডিয়ামকে আন্তর্জাতিক মানের করে গড়ে তোলা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর