• শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ০৫:২৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
কোটা বজায় রাখার নির্দেশ, চাইলে করা যাবে সংস্কার রাজউক প্রকল্পের দীর্ঘসূত্রতায় ক্ষোভ গণপূর্তমন্ত্রীর গমের উৎপাদন বাড়াতে মেক্সিকোর সহযোগিতা চান কৃষিমন্ত্রী সবুজ কারখানার সনদপ্রাপ্তিতে বাংলাদেশের নতুন রেকর্ড পিএসসিতে শুদ্ধি অভিযান জানমাল অনিশ্চয়তায় পড়লে বসে থাকবে না পুলিশ : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কেন বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নে আগ্রহী ফ্রান্স, জানালেন রাষ্ট্রদূত আন্দোলনকারীদের জন্য আদালতের দরজা খোলা: প্রধান বিচারপতি মংলা বন্দরে এক বছরে রাজস্ব বেড়েছে সাড়ে ৫ শতাংশ সাত দেশ থেকে পরিশোধিত জ্বালানি তেল কিনবে সরকার বাণিজ্যে স্থানীয় মুদ্রার ব্যবহার বাড়াতে সম্মত বাংলাদেশ-চীন ২৫ বছরের পুরোনো নথি জমা না দিলে জরিমানা নজরদারিতে পিএসসির ১০ কর্তা দেশের শিল্প খাতে রুফটপ সোলার ব্যবহার বাড়ছে ২০২৬ সালের মধ্যে শেষ হবে ডিজিটাল ভূমি জরিপ: ভূমিমন্ত্রী কর্মীদের দক্ষতা বাড়াতে কোটি ডলারের চুক্তি জাতিসংঘে সর্বসম্মতভাবে প্রস্তাব গৃহীত কোটা বাতিলের প্রজ্ঞাপন আপাতত বহাল এবার ওয়েবসাইটে মুদ্রানীতি প্রকাশ করবে কেন্দ্রীয় ব্যাংক বৃটেনে অন্য উচ্চতায় বাংলাদেশ

ভারত থেকে এবার কেনা হচ্ছে ১৪৮ কোটি টাকার সয়াবিন তেল

সিরাজগঞ্জ টাইমস / ৩৪০ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : মঙ্গলবার, ৯ মে, ২০২৩

ভারত থেকে এবার ১৪৮ কোটি টাকার সয়াবিন তেল কেনা হচ্ছে। এই টাকায় মোট এক কোটি ১০ লাখ লিটার তেল সংগ্রহ করা হবে। প্রতি লিটার তেলের দাম পড়বে ১৪৬ টাকার কিছু বেশি। দুই লিটার পেট বোতলে ভারতীয় কোম্পানি ‘গুভেন ট্রেডার্স প্রাইভেট লিমিটেড’ এই তেল সরবরাহ করবে। আজ মঙ্গলবার ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভার কমিটির বৈঠকে সয়াবিন তেল কেনার প্রস্তাবটি অনুমোদন পেতে যাচ্ছে বলে জানা গেছে।
সূত্র জানায়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) ২০২২-২৩ অর্থবছরে বার্ষিক ক্রয় পরিকল্পনার অংশ হিসেবে এক কোটি ১০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল ক্রয়ের প্রস্তাব গত ২৩ এপ্রিল বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠায়। এর আগে ২০১১ সালের জুন মাসে অনুষ্ঠিত অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় রাষ্ট্রীয় জরুরি প্রয়োজনে অনুমোদনের তারিখ থেকে ২০২৪ সালের ২৫ মে পর্যন্ত নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য পেঁয়াজ, রসুন, মসুর ডাল, ছোলা, মসলা-শুকনা মরিচ, দারুচিনি, লবঙ্গ, এলাচ, ধনে, জিরা, আদা, হলুদ, তেজপাতা, সয়াবিন তেল, পাম অয়েল, খাবার লবণ, আলু, খেজুর ইত্যাদি আমদানি/স্থানীয় বাজার থেকে সংগ্রহের লক্ষ্যে পিপিএ, ২০০৬ এর ৬৮(১) ধারা অনুযায়ী সরাসরি ক্রয়পদ্ধতিতে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রী ক্রয়ের প্রস্তাব অনুমোদিত হয়।

সূত্র জানায়, টিসিবি কর্তৃক এক কোটি ১০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল আন্তর্জাতিকভাবে ক্রয়ের জন্য পাবলিক প্রকিউরমেন্ট বিধিমালা, ২০০৮ অনুসরণ করে গত ১৬ এপ্রিল সয়াবিন তেল সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান গুভেন ট্রেডার্স প্রাইভেট লিমিটেড, মহারাষ্ট্র, ভারত (স্থানীয় এজেন্ট : এইচ এইচ এন্টারপ্রাইজ, ঢাকা) এর কাছ থেকে সয়াবিন তেল সরবরাহের জন্য দরপ্রস্তাব আহ্বান করা হয়। সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানকে আগামী ৩০ জুনের মধ্যে সম্পূর্ণ সয়াবিন তেল জাহাজীকরণ সম্পন্ন করার শর্ত দেয়া হয়। প্রতিষ্ঠানটি সে শর্ত মেনে দরপ্রস্তাবে প্রতি লিটার সয়াবিন তেলের দাম ১.৩৭ ডলার উল্লেখ করে। পাবলিক প্রকিউরমেন্ট বিধিমালা, ২০০৮ এর বিধি-১৬ (৫ক) অনুযায়ী দাফতরিক প্রাক্কলিত দর প্রণয়ন করে ১.২৯ ডলার। দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি কর্তৃক নির্ধারিত (নেগোশিয়েটেড) মূল্য প্রতি লিটার ১.২৬ ডলার।জানা গেছে, দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি কর্তৃক প্রাপ্ত দরপ্রস্তাব, তুলনামূলক বিবরণী, সংযুক্ত দাখিলকৃত কাগজ পরীক্ষা শেষে দরপ্রস্তাবটি রেসপনসিভ বিবেচিত হয়। মূল্যায়ন কমিটি প্রস্তাবটি দর পর‌্যালোচনা শেষ প্রতি লিটার সয়াবিন তেলের দাম ১.২৬ ডলার যথাযথ বিবেচনা করে দরদাতা প্রতিষ্ঠানের সাথে নেগোশিয়েশন করে। নেগোশিয়েটেড দরে সয়াবিন তেল সরবরাহের জন্য দরদাতার সম্মতি চাওয়া হলে প্রতিষ্ঠানটি নেগোশিয়েটেড ১.২৬ ডলার দরে এক কোটি ১০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল সরবরাহ করার লিখিতভাবে সম্মতি জানায়।
দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি সার্বিক বিষয় পর‌্যালোচনা করে নির্বাচিত প্রতিষ্ঠান গুভেন ট্রেডার্স প্রাইভেট লিমিটেডের কাছ থেকে এক কোটি ১০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল ২ লিটার পেট বোতলে ১.২৬ ডলার মূল্যে (১ ডলার=১০৭.০০ টাকা) ক্রয়ের সুপারিশ করে।
নির্ধারিত দরে টিসিবির গুদাম পর্যন্ত খরচ (ভ্যাট, এআইটি, পিএসআই ফি, মেরিন ইন্স্যুরেন্স, পোর্ট চার্জ, শিপিং এজেন্ট চার্জ, স্টিভডোরিং চার্জ, সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট কমিশন, ক্যারিং চার্জ ইত্যাদিসহ) প্রায় ১৪৬.১০ টাকা প্রতি লিটার। যা বর্তমানে স্থানীয় বাজারের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ বলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।উল্লেখ্য, বর্তমানে স্থানীয় বাজারে সয়াবিন তেলের প্রতিলিটারের গড়মূল্য ১৮২.৫০ টাকা। নির্ধারিত দর বর্তমান স্থানীয় বাজারমূল্য থেকে (১৮২.৫০-১৪৬.১০)=৩৬.৪০ টাকা কম। সূত্র জানায়, দরপ্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটির নির্ধারিত প্রতি লিটারের দাম ১৪৬.১০ টাকা হিসাবে এক কোটি ১০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল আমদানিতে মোট ব্যয় হবে এক কোটি ৩৮ লাখ ডলার সমপরিমাণ বাংলাদেশী মুদ্রায় ১৪৮ কোটি ৩০ লাখ ২০ হাজার টাকা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর