• বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৩৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
দ্বাদশ সংসদের দ্বিতীয় অধিবেশন বসছে ২ মে আপাতত মার্জারে যাচ্ছে ১০ ব্যাংক, এর বাইরে নয়: বাংলাদেশ ব্যাংক রাজধানীর অতি ঝুঁকিপূর্ণ ৪৪ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ভবন খালির নির্দেশ চলতি অর্থবছরে প্রবৃদ্ধি হবে ৬.১ শতাংশ কৃচ্ছ্রসাধনে আগামী বাজেটেও থোক বরাদ্দ থাকছে না নতুন যোগ হচ্ছে ২০ লাখ দরিদ্র প্রার্থী হচ্ছেন বিএনপি জামায়াত নেতারাও কিস্তির সময় পার হলেই মেয়াদোত্তীর্ণ হবে ঋণ বিভেদ মেটাতে মাঠে আওয়ামী লীগ নেতারা রেমিট্যান্সে সুবাতাস, ১২ দিনে এলো ৮৭ কোটি ডলার বাংলাদেশ ও চীনের বন্ধুত্বপূর্ণ পথচলা হয়ে উঠুক আরো শক্তিশালী বিএনপি এদেশের সাম্প্রদায়িকতার বিশ্বস্ত ঠিকানা: ওবায়দুল কাদের আজ খুলছে অফিস-আদালত-ব্যাংক-বিমা হাওরে বিশ্বের দীর্ঘতম আলপনা সমৃদ্ধ ও স্মার্ট ভবিষ্যৎ নির্মাণে একযোগে কাজ করার আহ্বান অর্থ প্রতিমন্ত্রীর বাংলাদেশি জাহাজ ছিনতাই: সোমালিয়ার ৮ জলদস্যু গ্রেপ্তার ইরান-ইসরাইল উত্তেজনা নিরসন ও গাজায় হত্যাযজ্ঞ বন্ধ চায় বাংলাদেশ: পররাষ্ট্রমন্ত্রী নতুন স্বপ্ন, প্রত্যাশা আর সম্ভাবনা নিয়ে এলো ১৪৩১ পয়লা বৈশাখে র‌্যালি করবে আওয়ামী লীগ চালের বস্তায় লিখতে হবে মূল্য-জাত

ভারত থেকে এবার কেনা হচ্ছে ১৪৮ কোটি টাকার সয়াবিন তেল

সিরাজগঞ্জ টাইমস / ২০৮ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : মঙ্গলবার, ৯ মে, ২০২৩

ভারত থেকে এবার ১৪৮ কোটি টাকার সয়াবিন তেল কেনা হচ্ছে। এই টাকায় মোট এক কোটি ১০ লাখ লিটার তেল সংগ্রহ করা হবে। প্রতি লিটার তেলের দাম পড়বে ১৪৬ টাকার কিছু বেশি। দুই লিটার পেট বোতলে ভারতীয় কোম্পানি ‘গুভেন ট্রেডার্স প্রাইভেট লিমিটেড’ এই তেল সরবরাহ করবে। আজ মঙ্গলবার ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভার কমিটির বৈঠকে সয়াবিন তেল কেনার প্রস্তাবটি অনুমোদন পেতে যাচ্ছে বলে জানা গেছে।
সূত্র জানায়, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন সংস্থা ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) ২০২২-২৩ অর্থবছরে বার্ষিক ক্রয় পরিকল্পনার অংশ হিসেবে এক কোটি ১০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল ক্রয়ের প্রস্তাব গত ২৩ এপ্রিল বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে পাঠায়। এর আগে ২০১১ সালের জুন মাসে অনুষ্ঠিত অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির সভায় রাষ্ট্রীয় জরুরি প্রয়োজনে অনুমোদনের তারিখ থেকে ২০২৪ সালের ২৫ মে পর্যন্ত নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য পেঁয়াজ, রসুন, মসুর ডাল, ছোলা, মসলা-শুকনা মরিচ, দারুচিনি, লবঙ্গ, এলাচ, ধনে, জিরা, আদা, হলুদ, তেজপাতা, সয়াবিন তেল, পাম অয়েল, খাবার লবণ, আলু, খেজুর ইত্যাদি আমদানি/স্থানীয় বাজার থেকে সংগ্রহের লক্ষ্যে পিপিএ, ২০০৬ এর ৬৮(১) ধারা অনুযায়ী সরাসরি ক্রয়পদ্ধতিতে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রী ক্রয়ের প্রস্তাব অনুমোদিত হয়।

সূত্র জানায়, টিসিবি কর্তৃক এক কোটি ১০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল আন্তর্জাতিকভাবে ক্রয়ের জন্য পাবলিক প্রকিউরমেন্ট বিধিমালা, ২০০৮ অনুসরণ করে গত ১৬ এপ্রিল সয়াবিন তেল সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান গুভেন ট্রেডার্স প্রাইভেট লিমিটেড, মহারাষ্ট্র, ভারত (স্থানীয় এজেন্ট : এইচ এইচ এন্টারপ্রাইজ, ঢাকা) এর কাছ থেকে সয়াবিন তেল সরবরাহের জন্য দরপ্রস্তাব আহ্বান করা হয়। সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানকে আগামী ৩০ জুনের মধ্যে সম্পূর্ণ সয়াবিন তেল জাহাজীকরণ সম্পন্ন করার শর্ত দেয়া হয়। প্রতিষ্ঠানটি সে শর্ত মেনে দরপ্রস্তাবে প্রতি লিটার সয়াবিন তেলের দাম ১.৩৭ ডলার উল্লেখ করে। পাবলিক প্রকিউরমেন্ট বিধিমালা, ২০০৮ এর বিধি-১৬ (৫ক) অনুযায়ী দাফতরিক প্রাক্কলিত দর প্রণয়ন করে ১.২৯ ডলার। দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি কর্তৃক নির্ধারিত (নেগোশিয়েটেড) মূল্য প্রতি লিটার ১.২৬ ডলার।জানা গেছে, দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি কর্তৃক প্রাপ্ত দরপ্রস্তাব, তুলনামূলক বিবরণী, সংযুক্ত দাখিলকৃত কাগজ পরীক্ষা শেষে দরপ্রস্তাবটি রেসপনসিভ বিবেচিত হয়। মূল্যায়ন কমিটি প্রস্তাবটি দর পর‌্যালোচনা শেষ প্রতি লিটার সয়াবিন তেলের দাম ১.২৬ ডলার যথাযথ বিবেচনা করে দরদাতা প্রতিষ্ঠানের সাথে নেগোশিয়েশন করে। নেগোশিয়েটেড দরে সয়াবিন তেল সরবরাহের জন্য দরদাতার সম্মতি চাওয়া হলে প্রতিষ্ঠানটি নেগোশিয়েটেড ১.২৬ ডলার দরে এক কোটি ১০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল সরবরাহ করার লিখিতভাবে সম্মতি জানায়।
দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি সার্বিক বিষয় পর‌্যালোচনা করে নির্বাচিত প্রতিষ্ঠান গুভেন ট্রেডার্স প্রাইভেট লিমিটেডের কাছ থেকে এক কোটি ১০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল ২ লিটার পেট বোতলে ১.২৬ ডলার মূল্যে (১ ডলার=১০৭.০০ টাকা) ক্রয়ের সুপারিশ করে।
নির্ধারিত দরে টিসিবির গুদাম পর্যন্ত খরচ (ভ্যাট, এআইটি, পিএসআই ফি, মেরিন ইন্স্যুরেন্স, পোর্ট চার্জ, শিপিং এজেন্ট চার্জ, স্টিভডোরিং চার্জ, সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট কমিশন, ক্যারিং চার্জ ইত্যাদিসহ) প্রায় ১৪৬.১০ টাকা প্রতি লিটার। যা বর্তমানে স্থানীয় বাজারের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ বলে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।উল্লেখ্য, বর্তমানে স্থানীয় বাজারে সয়াবিন তেলের প্রতিলিটারের গড়মূল্য ১৮২.৫০ টাকা। নির্ধারিত দর বর্তমান স্থানীয় বাজারমূল্য থেকে (১৮২.৫০-১৪৬.১০)=৩৬.৪০ টাকা কম। সূত্র জানায়, দরপ্রস্তাব মূল্যায়ন কমিটির নির্ধারিত প্রতি লিটারের দাম ১৪৬.১০ টাকা হিসাবে এক কোটি ১০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল আমদানিতে মোট ব্যয় হবে এক কোটি ৩৮ লাখ ডলার সমপরিমাণ বাংলাদেশী মুদ্রায় ১৪৮ কোটি ৩০ লাখ ২০ হাজার টাকা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর