• শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০:৪৭ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
তথ্যপ্রযুক্তি খাতে করারোপ হচ্ছে না ঢাকায় ব্যাটারিচালিত রিকশা চলতে বাধা নেই টেলিটক, বিটিসিএলকে লাভজনক করতে ব্যবস্থা নেয়ার সুপারিশ ভারত থেকে ২শ কোচ কেনার চুক্তি বেসরকারি কোম্পানি চালাতে পারবে ট্রেন দেশে মাথাপিছু আয় বেড়ে ২৭৮৪ ডলার ৫ জুন বাজেট অধিবেশন শুরু চালু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক শান্তি পুরস্কার বুদ্ধ পূর্ণিমা অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা বার্তা পাঠ করলেন বিপ্লব বড়ুয়া ইরানের প্রেসিডেন্টের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শোক নিত্যপণ্যের বাজার কঠোর মনিটরিংয়ের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর উত্তরা থেকে টঙ্গী মেট্রোরেলে হবে নতুন ৫ স্টেশন এমপিও শিক্ষকদের জন্য আসছে আচরণবিধি সরকার ই-বর্জ্য ব্যবস্থাপনা উন্নত করতে কাজ করছে: পরিবেশমন্ত্রী বাংলাদেশে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণে আগ্রহী কানাডা মেট্রোরেলে ভ্যাট এনবিআরের ভুল সিদ্ধান্ত ২৫ মে বঙ্গবাজার কমপ্লেক্সের নির্মাণ কাজের উদ্ভোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী সাগরে মাছ ধরা ৬৫ দিন বন্ধ বান্দরবানে যৌথ বাহিনীর অভিযানে তিনজন নিহত বঙ্গবন্ধু ‘জুলিও কুরি’ পদক নীতিমালা মন্ত্রিসভায় উঠছে

এলএনজির ৪ বিদ্যুৎকেন্দ্রে উৎপাদন চলতি বছরে

সিরাজগঞ্জ টাইমস / ৪২ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : রবিবার, ১৫ জানুয়ারী, ২০২৩

বিদেশ থেকে আমদানিনির্ভর লিকুইড ন্যাচারাল গ্যাস (এলএনজি) নির্ভর চারটি বড় বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণাধীন রয়েছে। এগুলো উৎপাদনে এলে জাতীয় গ্রিডে আরও প্রায় ২৫শ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ যোগ হবে। এতে উৎপাদন সক্ষমতা আরও বাড়বে বলে মনে করে বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ বিভাগ। নির্মাণাধীন কেন্দ্রগুলোর মধ্যে তিনটির অগ্রগতি বেশ ভালো। চলতি বছরের যে কোনো সময় এগুলোতে উৎপাদন শুরু হতে পারে।

নির্মাণাধীন চারটি বিদ্যুৎকেন্দ্র হচ্ছে ভারতীয় কোম্পানি রিলায়েন্সের ৭১৮ মেগাওয়াট ক্ষমতার কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎকেন্দ্র, সামিট পাওয়ারের মেঘনাঘাট-২ এর ৬০০ মেগাওয়াট ক্ষমতার কম্বাইন্ড সাইকেল বিদ্যুৎকেন্দ্র, ইউনিক মেঘনাঘাট পাওয়ার লিমিটেডের মেঘনাঘাট ৫৮৪ মেগাওয়াট বিদ্যুৎকেন্দ্র, এবং আনোয়ারার ৫৯০ মেগাওয়াট ক্ষমতার বিদ্যুৎকেন্দ্র। বিদ্যুৎ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, এলএনজি পাওয়ারনির্ভর করে বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলোর বাণিজ্যিক কার্যক্রম শুরুর তারিখ (সিওডি) নির্ধারণ করা হবে।

বিদ্যুৎ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, রিলায়েন্সের বিদ্যুৎকেন্দ্রটির ভৌত অগ্রগতি হয়েছে প্রায় ৮৮ শতাংশ। আর্থিক অগ্রগতি হয়েছে প্রায় ৮১ শতাংশ। সামিট মেঘনা ঘাট-২ এর ভৌত অগ্রগতি প্রায় ৮০ শতাংশ আর্থিক অগ্রগতি প্রায় ৬৭ শতাংশ, মেঘনাঘাট কেন্দ্রটির ভৌত অগ্রগতি ৬১ দশমিক ২০ শতাংশ, আর্থিক অগ্রগতি ৫৭ শতাংশ। এ ছাড়া আনোয়ারার কেন্দ্রটির ভৌত অগ্রগতি হয়েছে মাত্র ৩ শতাংশ, আর্থিক অগ্রগতি হয়েছে ১১ শতাংশ।

বিদ্যুৎ বিভাগের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, গ্যাসভিত্তিক কেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন আগে সবচেয়ে সস্তা ছিল। কিন্তু সারা দুনিয়ায় এলএনজির দাম বেড়ে যাওয়ায় পরিস্থিতি বদলেছে। এখন এলএনজি থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন ব্যয়বহুল হয়ে পড়েছে। এ কারণে সরকার অনেক এলএনজিভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের পরিকল্পনা বাতিল করেছে। তবে বেসরকারি খাতের চারটি কেন্দ্র নির্মাণাধীন রয়েছে।

বিদ্যুৎ বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭ সালে পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার পায়রা এলাকায় এলএনজিনির্ভর ৩৬০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেয় সরকার। এ জন্য জমি বরাদ্দ ও সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজও শেষ হয়। তবে এলএনজির দাম বেড়ে যাওয়ায় প্রকল্পটি বাতিল করা হয়েছে।

বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, ২০৩০ সালের মধ্যে যৌথ মালিকানায় বড় আকারের দুটি এবং সরকারিভাবে আরও সাতটি এলএনজি বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর