• রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ১০:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
নির্বাচনি ইশতেহার বাস্তবায়নের নির্দেশনা আসছে ডিসি সম্মেলনে উন্নয়নশীল দেশ হওয়ার পরও ৩ বছর শুল্ক সুবিধা পাবে বাংলাদেশ ৫০ হাজার টন পেঁয়াজ আসছে ভারত থেকে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে নতুন ৭ প্রতিমন্ত্রীর শ্রদ্ধাঞ্জলি এপ্রিলে শেষ হচ্ছে থার্ড টার্মিনাল নির্মাণ, চালু অক্টোবরে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ৫ সদস্যের কমিটি দেশে এখন ভোটার ১২ কোটি ১৮ লাখ প্রথম অফশোর ব্যাংকিং আইন হচ্ছে, সংসদে বিল আরসিবিসির বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের আদালতে মামলা চলবে বেইলি রোডে প্রাণহানির ঘটনায় ভারতের প্রধানমন্ত্রীর শোক যে কোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় সক্ষম সেনাবাহিনী গড়ে তোলা হবে রবিবার শুরু হচ্ছে ডিসি সম্মেলন, লক্ষ্য ‘দক্ষ ও স্মার্ট’ প্রশাসন আস্থার প্রতিদান দেবেন, নতুন প্রতিমন্ত্রীদের আশ্বাস জিয়াউর রহমান, সায়েম ও মোশতাকের ক্ষমতা দখল ছিল বেআইনি গণমাধ্যমকে আরো শক্তিশালী করতে প্রস্তুত সরকার: তথ্য প্রতিমন্ত্রী জ্বালানি তেলের স্বয়ংক্রিয় মূল্য নির্ধারণের প্রজ্ঞাপন জারি ঈদযাত্রায় ট্রেনের বগি বাড়ানো হবে: রেলমন্ত্রী আহতদের চিকিৎসার দায়িত্ব সরকারের ‘দোষীদের শাস্তির আওতায় আনতে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী’ প্রকৃত দাবিদারের দাবি স্বল্প সময়ে বুঝিয়ে দিন

ইমাম ভুলবশত অজু ছাড়া নামাজ পড়ালে করণীয় কী?

সিরাজগঞ্জ টাইমস / ২৯ বার পড়া হয়েছে।
সময় কাল : শনিবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২

ভুল সবার হতে পারে। ইমামও ভুলের ঊর্ধ্বে নয়। যদি অজু আছে ভেবে ইমাম সাহেব নামাজ পড়ান, তাহলে ইমাম-মুক্তাদি কারো নামাজই শুদ্ধ হবে না। সকলের জন্য উক্ত নামাজ কাজা করা আবশ্যক। কারণ, পবিত্রতা ছাড়া নামাজ সহিহ হয় না। এ ব্যাপারে কারো দ্বিমত নেই।

প্রখ্যাত হাদিসবিশারদ ও ফিকাহবিদ ইমাম শরফ আন-নববি (রহ.) বলেন, ‘অজুহীন ব্যক্তির জন্য নামাজ পড়া হারাম; এ ব্যাপারে আলেম-উলামারা একমত। তারা এ ব্যাপারেও একমত যে, অজুহীন ব্যক্তি অজু না থাকা সম্পর্কে অবগত থাকুক কিংবা না থাকুক, কোনো অবস্থাতেই নামাজ শুদ্ধ হবে না। তবে, অজ্ঞতার কারণে কোনো গুনাহ হবে না। আর যদি অজু না-থাকার বিষয়টি ও অজু ছাড়া নামাজ হারাম হওয়ার বিষয়টি জেনেও কেউ নামাজ পড়ে এবং পুনরায় আদায় না করে, তাহলে সে জঘন্য গুনাহে লিপ্ত।’ (আল-মাজমু, খণ্ড: ০২, পৃষ্ঠা-৭৯)

অজু ফরজ হওয়ার পক্ষে কোরআনের দলিল হলো—আল্লাহ তাআলা ইরশাদ করেন, হে মুমিনগণ, যখন তোমরা নামাজের জন্যে উঠো, তখন স্বীয় মুখমণ্ডল ও উভয় হাত কনুই পর্যন্ত এবং পদযুগল গিটসহ ধৌত করো। যদি তোমরা অপবিত্র হও তবে পুরো শরীর পবিত্র করে নাও এবং যদি তোমরা রুগ্ন হও বা প্রবাসে থাকো অথবা তোমাদের কেউ প্রসাব-পায়খানা সেরে আসে অথবা তোমরা স্ত্রীদের সঙ্গে সহবাস করো, অতঃপর পানি না পাও, তবে তোমরা পবিত্র মাটি দিয়ে তায়াম্মুম করে নাও—অর্থাৎ স্বীয় মুখ-মণ্ডল ও দুই হাত মাটি দিয়ে মুছে ফেলো। আল্লাহ তোমাদেরকে অসুবিধায় ফেলতে চান না; বরং তোমাদেরকে পবিত্র রাখতে চান এবং তোমাদের প্রতি স্বীয় নেয়ামত পূর্ণ করতে চান, যাতে তোমরা কৃতজ্ঞাতা প্রকাশ করো।’ (সুরা মায়েদা: ৬)

হজরত আব্দুল্লাহ বিন ওমর (রা.) থেকে বর্ণিত, রাসুল (স.) ইরশাদ করেছেন, পবিত্রতা ছাড়া নামাজ গ্রহণযোগ্য হয় না।’ (সুনানে ইবনে মাজাহ: ২৭২; ইবনে খুজাইমা: ৯, সহিহ ইবনে হিব্বান: ৩৩৬৬)

সুতরাং, ইমাম ভুলে অজু না থাকা অবস্থায় নামাজ পড়ালে ইমাম ও মুক্তাদি সবাইকে ওই নামাজ কাজা আদায় করতে হবে। যদি মুক্তাদি নামাজের স্থান ছেড়ে চলে যাওয়ার পর বিষয়টি ইমামের স্মরণ হয়, তাহলে তিনি মুসল্লিদের মাঝে এলান করে দেবেন যে, ওই দিনের অমুখ নামাজ সহিহ হয়নি, সুতরাং যারা ওই ওয়াক্তে শামিল ছিলেন, তারা সবাই সেই নামাজটি কাজা করে নেবেন।

(তথ্যসূত্র: কিতাবুল আসার, ইমাম মুহাম্মদ, বর্ণনা ১৩৩; মুসান্নাফে আবদুর রাজজাক, বর্ণনা ৩৬৬২; শরহু মুখতাসারিত তাহাবি: ১/১৫২; খিজানাতুল আকমাল: ১/২৩০; ফতোয়ায়ে খানিয়া: ১/৯২; ফাতহুল কাদির: ১/৩৬৬; আলবাহরুর রায়েক: ১/৩৬৬)

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে নামাজের যাবতীয় মাসয়ালা জানার, বুঝার ও যথাযথ মেনে চলার তাওফিক দান করুন। আমিন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর